দেশের অন্যতম বৃহৎ ইসলামী ওয়েবসাইটে স্বাগতম 


একই দিনে রোজা ও ঈদ করা প্রসঙ্গে


সারা বিশে^ একই দিনে ঈদ পালন করার পক্ষে দাবী তুলছে অনেকে। এর পক্ষে বিপক্ষে দলিল, যুক্তি উপস্থাপন করা হচ্ছে। তবে একই দিনে সারা বিশে^ ঈদ পালন করা বাস্তবসম্মত নয়। কেননা, অঞ্চল ভেদে চন্দ্র-সূর্যের অবস্থান এবং সময়ের ভিন্নতা আল্লাহর সৃষ্টি জগতের বৈচিত্র। এই বৈচিত্রকে অপছন্দ করার কোন এখতিয়ার কারো নেই। সময়ের ভিন্নতা মানতেই হবে। আল্লাহ তায়ালা নামাজ, রোজা ইত্যাদির জন্য নির্দিষ্ট সময় নির্ধারণ করে দিয়েছেন। এবং সময়গুলো সঠিকভাবে নির্ণয় করার জন্য দিয়েছেন চাঁদ-সূর্য। চাঁদ প্রসঙ্গে কোরআনুল কারীমে ইরশাদ হচ্ছে- يَسْأَلُونَكَ عَنِ الْأَهِلَّةِ ۖ قُلْ هِيَ مَوَاقِيتُ لِلنَّاسِ وَالْحَجِ অর্থাৎ- “আপনার নিকট তারা জিজ্ঞেস করে নতুন চাঁদের বিষয়ে বলে দিন যে এটি মানুষের জন্য সময় নির্ধারণ এবং হজ্বের সময় ঠিক করার মাধ্যম।”
কুরআনুল কারীমের অন্যত্র ইরশাদ হচ্ছে- هُوَ الَّذِيْ جَعَلَ الشَّمْسَ ضِيَاءً وَالْقَمَرَ نُوْرًا وَقَدَّرَهُ مَنَازِلَ لِتَعْلَمُوْا عَدَدَ السِّنِيْنَ وَالْحِسَابَ অর্থাৎ- “তিনি সেই মহান স্বত্তা, যিনি তৈরি করেছেন সূর্যকে উজ্জল আলোকময় আর চন্দ্রকে ¯িœগ্ধ আলো বিতরণকারী রুপে অতঃপর নির্ধারিত করেছেন এর জন্য মনজিল সমূহ, যাতে করে তোমরা জানতে পারো বছরের গণনা ও হিসাব।” রোজার সময় সম্পর্কে পবিত্র কুরআনে ইরশাদ হচ্ছে- فَمَن شَهِدَ مِنكُمُ الشَّهْرَ فَلْيَصُمْهُ ۖ অর্থাৎ- “তোমাদের মধ্যে যে এই মাস পাবে সে রোজা রাখবে।”
অত্র আয়াতে রোজা রাখার জন্য রমজান মাস উপস্থিত হওয়া শর্ত। ফরজ রোজা রমজান মাস উপস্থিত হওয়া বা শুরু হওয়ার আগে নয়। আর এই মাস শুরু হওয়াটা নির্ধারিত হবে চাঁদ দেখার মাধ্যমে যা বিভিন্ন স্থানে বিভিন্ন সময়ে হয়ে থাকে, যেমনটা নামাজের সময় বিভিন্ন স্থানে বিভিন্ন রকম হয় সূর্যের অবস্থানের কারণে। এটাই আল্লাহর বিধান। এই ব্যাপারে নির্দিষ্ট করে নির্দেশনাও এসেছে হাদিস শরীফে। عَنْ اِبْنِ عُمَرَ قَالَ سَمِعْتُ رَسُوْلُ اللهِ صَلَّي اللهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ يَقُوْلُ اِذَا رَاَيْتُمُ الْهِلَالَ فَصُوْمُوْا وَاِذَا رَاَيْتُمُوْهُ فَاَفْطِرُوْا فَاِنْ غُمَّ عَلَيْكُمْ فَاقْدُرُوْا لَهُ অর্থাৎ- “যখন তোমরা চাঁদ দেখবে তখন রোজা পালন করবে। যখন চাঁদ দেখবে তখন রোজা ভঙ্গ করবে। তবে হ্যাঁ, আকাশ মেঘাচ্ছন্ন থাকলে মাসের ত্রিশ দিন পূর্ণ করবে।” অতএব, কোরআন এবং হাদিসের আলোকে এটা পরিষ্কার যে চাঁদ দেখার মাধ্যমেই মাস শুরু হওয়া নির্ধারিত হবে যা বিভিন্ন অঞ্চলে বিভিন্ন সময়ে হবে।

নির্বাচিত বিষয়সমুহ
সর্বাধিক পঠিত প্রবন্ধসমুহ
গুরুত্বপূর্ণ পেইজগুলো

This page has 1843 hits